সর্বশেষঃ
বিজ্ঞান-প্রযুক্তি

গুগল বাংলাদেশে ভূমিকম্প অ্যালার্ট সেবা চালু করল

দেশে ‘অ্যান্ড্রয়েড আর্থকোয়াক অ্যালার্ট’ সিস্টেম চালু করেছে গুগল। নতুন এই ফিচারটি বিনামূল্যে ব্যবহার করা যাবে। ‘অ্যান্ড্রয়েড আর্থকোয়াক অ্যালার্ট’ ফিচার ভূমিকম্প শনাক্ত ও ভূমিকম্প বিষয়ে সতর্ক করবে ব্যবহারকারীদের।

ভূকম্পন-সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় শনাক্ত করতে এ সিস্টেমটি সক্রিয় অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনগুলোর অ্যাকসিলারোমিটারসহ একাধিক সেন্সর ব্যবহার করে। এ ফিচারটি ব্যবহারকারীদের দুইভাবে ভূমিকম্প সম্পর্কিত আগাম সতর্কবার্তা পেতে সহায়তা করবে- ১. সার্চের মাধ্যমে এবং ২. সরাসরি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ডিভাইস থেকে।

এ সিস্টেমটি ব্যবহারকারীদের গুগল সার্চের মাধ্যমে ভূমিকম্প সংক্রান্ত ‘নিয়ার ইন্সট্যান্ট ইনফরমেশন’ (নিকটবর্তী স্থানের ভূমিকম্প সম্পর্কিত তাৎক্ষণিক তথ্য) প্রদান করবে। এ ফিচারটি ব্যবহার করে গুগলে ‘আর্থকোয়াক’ অথবা আর্থকোয়াক ‘নিয়ার মি’ লিখে সার্চ করলে ভূমিকম্প সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় জানা যাবে। একইসঙ্গে ভূমিকম্পের পর করণীয় বিষয়গুলো সম্পর্কেও এ ফিচার থেকে বিভিন্ন তথ্য পাওয়া যাবে।

লস অ্যাঞ্জেলেস, ফিলিপিন সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আর্থকোয়াক নোটিফিকেশন (ভূমিকম্পন সংক্রান্ত তথ্য) ফিচারটি বেশ জনপ্রিয় হয়েছে। নোটিফিকেশন অ্যালার্ট এর পাশাপাশি ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থলের কাছাকাছি একটি ভৌগলিক এলাকার ব্যবহারকারীরা গুগল সার্চে ভূমিকম্পের তথ্য অনুসন্ধান করে একটি অ্যালার্ট কার্ডও খুঁজে পাবেন এবং ক্রাউডসোর্সড ফিডব্যাকও দেওয়া যাবে।

ভূমিকম্পের ভয়াবহতা ও তীব্রতার ওপর নির্ভর করে মোবাইল ডিভাইসে ‘অ্যান্ড্রয়েড আর্থকোয়াক অ্যালার্ট’ সিস্টেম দু’টি ভিন্ন ধরনের সতর্কতা বার্তা প্রদর্শন করে-

* বি অ্যাওয়ার: ৪.৫ মাত্রার ভয়াবহ ভূমিকম্প বা মডিফাইড মার্সিলি ইনটেনসিটি (এমএমআই) স্কেলে ভূমিকম্পের মাত্রা ৩ কিংবা ৪ হলে ‘বি অ্যাওয়ার’ ফিচারটি মানুষকে সতর্ক করবে। এ ধরনের পরিস্থিতিতে, ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থলের দূরত্ব সহ ব্যবহারকারীর কাছে নোটিফিকেশন পাঠানো হয়। এ সতর্কবার্তা ফোনের কারেন্ট ভলিউম, ভাইব্রেশন ও ডু নট ডিস্টার্ব সেটিং ব্যবহার করে পাঠানো হয়।

* টেক অ্যাকশন : ৪.৫ মাত্রারও বেশি ভয়াবহ ভূমিকম্প কিংবা মডিফাইড মার্সিলি ইনটেনসিটি (এমএমআই) স্কেলে ভূমিকম্পের মাত্রা পাঁচ এর বেশি হলে ‘টেক অ্যাকশন’ ফিচারটি ভূমিকম্পের ফুল-স্ক্রিন সতর্কবার্তা প্রদান করবে। সম্ভাব্য ভয়াবহ ঝাঁকুনিতে মানুষকে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি গ্রহণে সহায়তা করতে ডিভাইসে ফুল-স্ক্রিন নির্দেশনা ভেসে উঠবে এবং ফোনটি উচমাত্রার সংকেত প্রদান করবে।

২০২০ সালের আগস্ট মাসে অ্যান্ড্রয়েড আর্থকোয়াক অ্যালার্ট সিস্টেম ফিচারটি সর্বপ্রথম নিউজিল্যান্ড ও গ্রিসে চালু করা হয়। বর্তমানে, এটি কাজাখস্তান, কিরগিজ রিপাবলিক, ফিলিপাইন, তাজিকিস্তান, তুরস্ক, তুর্কমেনিস্তান, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও উজবেকিস্তানে চালু রয়েছে। ভূমিকম্প সংঘটিত হওয়ার আগে মানুষকে তাদের প্রয়োজনীয় সামগ্রী নিয়ে নিরাপদ ও সুরক্ষিত স্থানে যেতে এ ফিচারটির আগাম সতর্কবার্তা বেশ সহায়ক বলে মনে করছেন ব্যবহারকারীরা।

আপনার ফোনে ভূমিকম্প সতর্ক বার্তা ফিচারটি চালু আছে কিনা তা জানতে ফোনে দেখুন- সেটিংস>লোকেশন>অ্যাডভান্স>আর্থকোয়েক অ্যালার্ট। ফিচারটি নিয়ে আরো জানতে ক্লিক করুন এখানে

টেক টাইমস বিডি এর ফেসবুক পেজের লিংক

আসুন জেনে নেই Microsoft Word এর পরিচিতি ও ব্যবহার সম্পর্কে।

 

তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি

আরও দেখুন
Back to top button
error: Content is protected !!