সর্বশেষঃ

গেমিং স্মার্টফোন বাজারে ছাড়লো ওয়ালটন

দেশের স্মার্টফোন বাজারে একের পর এক চমক দিচ্ছে ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের মোবাইল বিভাগ। সাশ্রয়ী দামে অত্যাধুনিক ফিচারসমৃদ্ধ ফোন দিয়ে গ্রাহকদের মন জয় করে নিয়েছে ওয়ালটন। এরই ধারাবাহিকতায় নতুন আরেকটি বাজেট সেরা ফোন বাজারে ছাড়লো ওয়ালটন।

নজরকাড়া ডিজাইনের ‘প্রিমো এইচ টেন’ মডেলের নতুন ফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে শক্তিশালী গেমিং প্রসেসর, র‌্যাম ও রম, ট্রিপল ক্যামেরা, দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারিসহ দুর্দান্ত সব ফিচার।

ওয়ালটন মোবাইলের চিফ বিজনেস অফিসার (সিবিও) এস এম রেজওয়ান আলম জানান, অল্প বাজেটে যারা গেমিং স্মার্টফোন খুঁজছেন, তাদের জন্য ‘প্রিমো এইচ টেন’ আদর্শ ডিভাইস। ম্যাজিক ব্ল্যাক এবং লেজার গ্রিন রঙের ফোনটি খুবই দৃষ্টিনন্দন। এর দাম মাত্র ১২,৯৯৯ টাকা। ওয়ালটন প্লাজা, মোবাইল ব্র্যান্ড ও রিটেইল আউটলেটের পাশাপাশি ঘরে বসেই অনলাইনে ই-প্লাজা থেকে ফোনটি কেনা যাচ্ছে। এছাড়া দেশের সব ওয়ালটন প্লাজায় রয়েছে কিস্তিতে কেনার সুবিধা।
ওয়ালটন মোবাইলের ক্রিয়েটিভ অ্যান্ড কমিউনিকেশন্সের ইনচার্জ হাবিবুর রহমান তুহিন জানান, ‘প্রিমো এইচ টেন’ ফোনটিতে রয়েছে ২০:৯ অ্যাসপেক্ট রেশিওর ৬.৫২ ইঞ্চির এইচডি প্লাস ডিসপ্লে। আইপিএস ইনসেল প্রযুক্তির ২.৫ডি গ্লাস সমৃদ্ধ পর্দার রেজ্যুলেশন ১৬০০ বাই ৭২০ পিক্সেল। অ্যান্ড্রয়েড ১১ অপারেটিং সিস্টেমে পরিচালিত এই ফোনে ব্যবহৃত হয়েছে ২.৩ গিগাহার্জ গতির শক্তিশালী হেলিও জি৩৫ অক্টাকোর গেমিং প্রসেসর। গ্রাফিক্স হিসেবে আছে আইএমজি পাওয়ার ভিআর জিই৮৩২০। এরসঙ্গে ৪ জিবি র‌্যাম থাকায় দুর্দান্ত গতির সঙ্গে মিলবে অসাধারণ গেমিং অভিজ্ঞতা। ফোনটিতে ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের সঙ্গে ২৫৬ জিবি মাইক্রো এসডি কার্ড সাপোর্ট করবে। ফলে অনেক বেশি ডকুমেন্ট, ছবি, ভিডিও ইত্যাদি সংরক্ষণ করা সম্ভব হবে।
স্মার্টফোনটির পেছনে রয়েছে এলইডি ফ্ল্যাশসহ ১.৮ অ্যাপারচার সমৃদ্ধ এআই ট্রিপল অটোফোকাস ক্যামেরা। যার প্রধান সেন্সরটি ১৩ মেগাপিক্সেলের। পাশাপাশি রয়েছে ২ মেগাপিক্সেলের ডেফথ সেন্সর এবং আরেকটি ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো শুটার। ১/৩ ইঞ্চির ৫পি লেন্স থাকায় ছবি হবে ঝকঝকে ও নিখুঁত। আকর্ষণীয় সেলফির জন্য ফোনটির সামনে রয়েছে ২.০ অ্যাপারচারের ৮ মেগাপিক্সেল ভি-নচ ক্যামেরা। উভয় ক্যামেরায় ফুলএইচডি রেজ্যুলেশনের ভিডিও ধারণ করা যাবে।

ক্যামেরার বিশেষ ফিচারের মধ্যে রয়েছে বিএসআই, ফেস ডিটেকশন, ডিজিটাল জুম, নরমাল মোড, প্রফেশনাল মোড, পোর্ট্রেট, এইচডিআর, সেলফ টাইমার, টাচ ফোকাস, টাচ ক্যাপচার, ফিংগারপ্রিন্ট ক্যাপচার, ভলিউম ক্যাপচার, স্লো মোশন, টাইম-ল্যাপস, প্যানোরামা, জিফ, ফিল্টার, নাইট, বিউটি মোড, এন্টি ফ্লিকার, এই/এএফ লক, ইন্টেলিজেন্ট স্ক্যানিং, হোয়াইট ব্যালান্স ইত্যাদি।
দুর্দান্ত পাওয়ার ব্যাকআপের জন্য ফোনটিতে রয়েছে টাইপ সি চার্জিংসহ ৫০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার লি-পলিমার ব্যাটারি। এর অন্যান্য ফিচারের মধ্যে রয়েছে ফেস আনলক, ফিংগারপ্রিন্ট, ফুল এইচডি ভিডিও প্লেব্যাক, ইন্টেলিজেন্ট এসিস্ট্যান্ট, স্মার্ট টাচ, সুপার স্ক্রিন শট, ফ্ল্যাশ লাইট কাস্টোমাইজেশন, ভিওএলটিই বা ভোল্টি সাপোর্টসহ থ্রি ইন ওয়ান ডুয়াল ফোরজি সিম সাপোর্ট, ওটিএ, ওটিজি, ডুয়াল ব্যান্ড ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ভি৪, অ্যাকসিলারোমিটার (থ্রিডি), ওরিয়েন্টেশন, লাইট, প্রক্সিমিটি, ই-কম্পাস, জাইরোস্কোপ, গেম রোটেশন ভেকটর, ওয়্যারলেস ডিসপ্লে ইত্যাদি।

ওয়ালটনের নিজস্ব কারখানায় তৈরি প্রিমো এইচ টেন স্মার্টফোনে ৩০ দিনের বিশেষ রিপ্লেসমেন্ট সুবিধা রয়েছে। এছাড়া, ১০১ দিনের প্রায়োরিটি সেবাসহ স্মার্টফোনে এক বছরের এবং ব্যাটারি ও চার্জারে ছয় মাসের বিক্রয়োত্তর সেবা পাচ্ছেন গ্রাহক।

বুয়েট-ওয়ালটন একসঙ্গে গবেষণা ও উদ্ভাবনে কাজ করবে

তথ্যসূত্র: রাইজিংবিডি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!