সর্বশেষঃ
Featuredহ্যান্ড পেইন্ট

বাটিক প্রিন্ট করার আগে কিভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে

আমাদের দেশে বিভিন্ন কাপড়ে বাটিক প্রিন্ট করা এখন একটি প্রচলিত ও জনপ্রিয় কাজ ৷ শুধু শহরেই নয় বরং গ্রামেও এর চাহিদা দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে ৷ এখন যে কেউ নিজে থেকে বা পারিবারিক ভাবে স্বল্প পুঁজি ও লোকবল নিয়েই এই ব্যবসা করে আর্থিকভাবে লাভবান হতে পারেন ৷

বাটিক প্রিন্টঃ

বাটিক প্রিন্ট এমন এক ধরনের নকশা যা মোম ও রং দিয়ে গোলানো পানির মাধ্যমে নানা কাপড়ে করা হয়৷ অবশ্য বাটিক প্রিন্ট করার জন্য কাপড়ে নকশা আঁকা ও তা মোম দিয়ে ঢেকে দেওয়া বেশ জরুরি ৷ বাটিক প্রিন্টকে অনেকে টাইডাই প্রিন্টও বলে থাকে ৷ কাপড়ের উপর বাটিক বা টাইডাই প্রিন্ট করার আগে কিছু প্রাথমিক প্রস্তুতি নেওয়া দরকার৷ যেমনঃ

কাপড় ধোয়াঃ বাটিক প্রিন্ট করার আগে কাপড়ে ধোঁয়ার জন্য আপনার যা যা লাগবে তা হলোঃ

১ মিটার কাপড়
২ লিটার ফুটন্ত গরম পানি
টেবিল চামচ গুঁড়ো সাবান
২০ গ্রাম কাপড় কাচার সোডা
প্রয়োজনমত ঠান্ডা পানি

এবার কিভাবে কাপড় ধুইতে হবে তার ধাপগুলো হলোঃ

*** প্রথমেই কাপড়ের মাড় ছাড়িয়ে নিতে হবে যাতে সুতায় রংটা সহজেই মিলে যায়৷ এজন্য কাপড়টি ৩০ মি. ঠান্ডা পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে।
*** এরপর পানি থেকে কাপড়টি ভালো করে কেচে নিতে হবে।
*** ডেকচিতে ২ লিটার পানি ফুটিয়ে ফুটন্ত পানিতে ২০ গ্রাম সোডা ও ১ টেবিল চামচ গুঁড়া সাবান গোলাতে হবে৷ তাতে কাপড়টি ১০ থেকে ১৫ মিনিট উল্টিয়ে-পাল্টিয়ে নেড়ে নিতে হবে।
*** এরপর ডেকচি নামিয়ে পাত্রসহ কাপড়টি ঐ অবস্থায় ৩০ মিনিট ঢেকে রাখতে হবে।
*** এরপর কাপড় উঠিয়ে পরিষ্কার ঠান্ডা পানিতে ভালোভাবে ধুয়ে নিতে হবে।
*** তারপর কাপড় শুকিয়ে ইস্ত্রি করে নিলেই কাজ শেষ।

কাপড়ে মোম লাগানোঃ প্রথমেই মনে রাখা দরকার, বাটিক নকশা করার সময় মোম শেষ হয়ে গেলে বড় পাত্রে মোম গরম করে আবার ছোট পাত্রে নিতে হবে৷ আর স্টোভে কাজ করলে স্টোভের আঁচ কমিয়ে দিয়ে সরাসরি বড় পাত্র থেকে মোম নিয়ে কাজ করতে হবে৷ কাপড়ে মোম লাগাতে যা যা লাগবে তা হলোঃ

১ টা পেন্সিল
১ টা কার্বন পেপার
১ টা ট্রেসিং পেপার
১ চা চামচ রবিন ব্লু
৫ তোলা কেরোসিন
প্রয়োজনমত নকশা
১ পোয়া প্যারাফিন
আধা পোয়া মধু মোম
১ ছটাক রজন
১ মিটার কাপড়
নকশা অনুযায়ী ব্রাশ
কাপড়ের মাপ অনুযায়ী ফ্রেম বা পিন
১ টা মাটির বা গ্যাসের চুলা বা স্টোভ

 কিভাবে মোম লাগাতে হবে তার ধাপগুলো হলোঃ

প্রথমে কাপড়ে যে নকশাটি করবো সে নকশাটি প্রথমে পেন্সিল বা কার্বন পেপার দিয়ে গাঢ় করে আঁকি বা ছাপ দেই নকশাটির উপর ট্রেসিং পেপার রেখে তা আলপিন দিয়ে ছিদ্র করতে হবে ৷ এর উপর রবিন ব্লু এবং কেরোসিন এক সাথে তুলা বা পাতলা কাপড়ে মাখিয়ে ট্রেসিং পেপারের উপর ঘষে দিলেই তাতে কাপড়ের ওপর দাগ হয়ে যাবে।
এবার কাপড়টি টান টান করে টেবিলে অথবা মাটিতে পিন বা ফ্রেম দিয়ে আটকে নিতে হবে অথবা ভারী কিছু দিয়ে চাপা দিতে হবে।

একটি চুলায় পাতিল দিয়ে তাতে ১ পোয়া প্যারাফিন, আধা পোয়া মধু মোম ও ১ ছটাক রজন দিয়ে তার উপর ১ চা চামচ পানি ছিটিয়ে দিতে হবে। ধীরে ধীরে উপকরণগুলি গলা মাত্র পাত্রটি চুলা থেকে নামাতে হবে৷ তারপর গলানো মোমের মিশ্রণটি আরেকটা ছোট পাত্রে অল্প অল্প করে উঠিয়ে নিতে হবে৷ এতে মিশ্রণে থাকা মোম কালো হবে না। এরপর ব্রাশ বা জান্টিং দিয়ে কাপড়ের নকশার উপর গলানো মোম খুব হাল্কা ভাবে লাগিয়ে নিতে হবে৷ অবশ্য জান্টিং-এ গলা মোম নিয়ে আঁকা নকশার উপর সরাসরি মোম দিলেও হয়।
মনে রাখতে হবে, ভুল জায়গায় মোম পড়ে গেলে সেখানে চোষ কাগজ রেখে তার উপরে গরম ইস্ত্রি ধরলে বাড়তি মোম উঠে যাবে।

এভাবে কাপড়ের প্রথম পিঠে মোম লাগাবার পর কাপড়ের উল্টা পিঠে একই জায়গায় মোম লাগাতে হবে৷ সেইসাথে কাপড়টি উল্টিয়ে প্রথমে যেখানে মোম লাগানো হয়েছিল সেখানে আবার মোম লাগাতে হবে।
কাজ শেষ হয়ে যাবার পর কাপড়টি কমপক্ষে ১২ ঘন্টা ছায়ায় বা ১ ঘন্টা পানিতে ডুবিয়ে রাখতে হবে৷ এরপর রং করার কাজটি করতে হবে।

কাপড়ে রং(প্রুশিয়ান) তৈরিঃ বাটিকের জন্য নানারকম কাপড়ে রং করা যায়৷ তবে এজন্য প্রায় ১ ঘন্টা ধরে কিছু ধাপ অনুসরণ করতে হবে৷ প্রথমেই আসা যাক রং তৈরির কথায়৷ বাজারে নানা রকম রং কিনতে পাওয়া যায় যা আবার নিজেরাও তৈরি করে নেওয়া যায়৷ নিজেরা রং তৈরি করতে চাইলে নিচের নিয়ম অনুযায়ী নানা ধরনের রং তৈরি করা যাবে-

কোন কোন রং মেশাতে হবে নতুন কোন রং পাওয়া যাবে

হলুদ ২ গুণ + লাল ১ গুণ কমলা
সবুজ ১ গুণ + হলুদ ৩ গুণ কফি কালার
কালো ১ গুণ + সবুজ ১ গুণ গাঢ় সবুজ
নীল + হলুদ + লাল মেরুন
নীল + গোলাপী জাম
নীল + লাল বেগুনী
কমলা + নীল চকলেট
লাল + হলুদ হালকা বাদামী
কমলা + নীল বাদামী
লাল + কমলা লালচে কমলা
লাল + বেগুনী লালচে বেগুনী
নীল + সবুজ ময়ূরকণ্ঠী রং
লাল + হলুদ + নীল চকলেট
হলুদ+ আকাশী হালকা সবুজ

১ মিটার কাপড়ে বাটিক নকশা করার সময় রং করতে হলে কি কি করতে হবে তা পরিমাণসহ দেওয়া হলোঃ

উপকরণের নাম উপকরণের পরিমাণ

প্রুশিয়ান রং ১ তোলা
লবণ ঌ চা. চামচ (সমান সমান)
ঠান্ডা পানি প্রয়োজনমত
কাপড় কাচার সোডা ২ চা. চামচ (সমান সমান)
বাটি ১ টা
বালতি বা গামলা ১ টা
ফুটান্ত গরম পানি ১ ছটাক

এখন জেনে নেয়া যাক কিভাবে কাপড়ে রং করতে হবে:

• প্রথমে কাপড়টি ১০ মিনিট ঠান্ডা পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে।
• এরপর মাটি বা প্লাষ্টিকের বাটিতে কাপড়টি ১ ছটাক ফুটন্ত গরম পানিতে রং গুলে নিতে হবে।
• একটি গামলায় রং গোলা পানি দিয়ে তাতে কাপড়টি ভালোভাবে ভিজবে এমন পরিমাণ ঠান্ডা পানি দিতে হবে।
• এরপর কাপড়টি রং গোলানো পানিতে ১৫ মিনিট নাড়াচাড়া করে গামলা থেকে উঠিয়ে নিতে হবে।
• ঐ পানিতে ঌ চা চামচ লবণ গুলিয়ে আবার কাপড়টি ১৫ মিনিট রংয়ের পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে।
• এবার কাপড়টি রংয়ের পানি থেকে তুলে ফেলতে হবে৷ ঐ পানিতেই ২ চা চামচ সোডা গুলে নিয়ে তাতে কাপড়টি ১৫ মিনিট ভিজিয়ে রাখতে হবে।
• এরপর কাপড়টি একটু নেড়েচেড়ে দ্বিতীয়বারের মত ১৫ মিনিট ভিজিয়ে রাখতে হবে।
• এরপর কাপড়টি পানি থেকে তুলে তা থেকে পানি ঝরিয়ে ফেলতে হবে৷ এরপর তা ছায়ায় শুকাতে দিতে হবে৷ অবশ্য এজন্য প্রায় ১ দিনের মত লাগতে পারে।

কাপড়ে মোম ছাড়ানো: এবার কিভাবে কাপড়ে মোম ছাড়াতে হবে তার ধাপগুলো জেনে নেওয়া যাক:

প্রথমে ১ টি হাঁড়ি, ৩-৪ লিটার গরম পানি, প্রয়োজনমত ঠান্ডা পানি ও ১ টি সাবান লাগবে।

প্রথমেই শুকনো কাপড়ের মোম ছাড়াবার জন্য কাপড়টি ৩০ মিনিট ঠান্ডা পানিতে ডুবিয়ে রাখতে হবে।

এরপর যতক্ষণ পর্যন্ত কাপড় থেকে রং উঠবে ততক্ষণ পর্যন্ত বেশি পরিমাণ ঠান্ডা পানিতে ধুতে থাকতে হবে৷ মনে রাখতে হবে, সাদা পানি বের না হওয়া পর্যন্ত ধুতে হবে।

একটি হাঁড়িতে ৩-৪ লিটার ফুটন্ত গরম পানি নিয়ে তার সাথে ১টা সাবানের চার ভাগের ১ ভাগ কেটে পানিতে দিয়ে দিতে হবে।

সাবান গলে গেলে কাপড়টি ঐ ফুটন্ত গরম পানির মধ্যে দিয়ে তা ১০ থেকে ১৫ মিনিট সিদ্ধ করতে হবে৷ এই সময়ের মধ্যে কাপড়টি কয়েকবার উঠানামা করাতে হবে৷

মনে রাখতে হবে, একবারে মোম না উঠলে পুনরায় একইভাবে সিদ্ধ করতে হবে।

মোম ছাড়ানো শেষ হলে ঠান্ডা পানিতে তা পরিষ্কার করে ধুয়ে নিতে হবে৷ তারপর কাপড়টি ছায়ায় শুকিয়ে নিয়ে তাতে মাড় দিতে হবে।(মনে রাখতে হবে কাপড়ে সূর্যের আলো লাগলে রং জ্বলে যেতে পারে)।

সবশেষে মাড় দেওয়া কাপড়টি শুকিয়ে গেলে আয়রন করতে হবে।

টেক টাইমস বিডি

টেক টাইমস বিডি ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন
টেক টাইমস বিডি ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ টেক টাইমস বিডি ফেসবুক পেজের লিংক
টেক টাইমস বিডি ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে এখানে ক্লিক করুন এবং তথ্য প্রযুক্তির আপডেট ভিডিও দেখুন।
গুগল নিউজে টেক টাইমস বিডি সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন।
তথ্য প্রযুক্তির আপডেট খবর পেতে ভিজিট করুন www.techtimesbd.com ওয়েবসাইট।

আরও দেখুন
Back to top button
error: Content is protected !!