হ্যান্ড পেইন্টিং ব্যবসায় সফল উদ্যোক্তা সোনিয়া রহমান

হ্যান্ড পেইন্টিং ব্যবসায় সফল উদ্যোক্তা সোনিয়া রহমান
সোনিয়া রহমান, সিরাজগঞ্জের মেয়ে। জন্ম ও বেড়ে ওঠা শাহাজাদপুর উপজেলায়। শিক্ষক বাবা ও গৃহীনি মায়ের দ্বিতীয় সন্তান সবাই যখন ভালো চাকরি করে জীবন যাপন করার স্বপ্ন দেখে , সেখানে সোনিয়া স্বপ্ন দেখেন একজন সফল উদ্যোক্তা হওয়ার। টেক টাইমস বিডি ডটকমে বলেছেন তার উদ্যোগের গল্প।

টেক টাইমস বিডি : কেমন আছেন?
সোনিয়া রহমান : ভালো আছি।

টেক টাইমস বিডি : আপনার পড়ালেখা ও কর্মজীবন সম্পর্কে জানতে চাই?
সোনিয়া রহমান : বর্তমানে আমি বিএসসি ইন ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ছি। কর্মক্ষেত্রে আমি একজন এফ-কমার্স উদ্যোক্তা এবং এই পরিচয়টি দিতেই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি। আমার ফেসবুক পেজ বা প্রতিষ্ঠানের নাম ‘ক্রিয়েটিভ হাতের কাজ’। পাশাপাশি হ্যান্ড পেইন্ট বিষয়ক ফেসবুক গ্রুপ হ্যান্ড পেইন্ট আর্ট অ্যান্ড হ্যান্ডিক্রাফটসের অ্যাডমিন হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি।

টেক টাইমস বিডি : ব্যবসা শুরুর গল্পটা জানতে চাই।
সোনিয়া রহমান : আমি মনে করি প্রতিটা কাজ শুরু করাটা অনেক বেশি কঠিন। সংসার ও পড়াশুনা রেখে ব্যবসায় সময় দেওয়া আমার জন্য কঠিন ছিল। পরিবার থেকেও খুব সহজে মেনে নিবে কি না সেটা নিয়েও দ্বিধাদ্বন্দ্বে ছিলাম। কারণ অনলাইনে ব্যবসা গতানুগতিক কাজ থেকে কিছুটা আলাদা। ব্যবসা কীভাবে শুরু করব, কেমন করে পণ্য সংগ্রহ করব, এসবের তথ্য সংগ্রহ করাই ছিল অন্যতম বড় বাঁধা। কিন্তু আমার স্বামী এসব ব্যপারে আমাকে মানসিক ও সার্বিক সাপোর্ট দিয়েছেন।

টেক টাইমস বিডি : কী কী পণ্য নিয়ে কাজ করছেন?
সোনিয়া রহমান : আমার উদ্যোগের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত হ্যান্ড পেইন্ট পণ্য নিয়ে কাজ করছি। হ্যান্ড পেইন্ট কাজে নতুন্ত্ব আনার চেষ্টা করছি প্রতিনিয়তই।

টেক টাইমস বিডি : হ্যান্ড পেইন্ট নিয়ে কাজ করার পরিকল্পনা কেন ছিল?
সোনিয়া রহমান : আসলে শুরু থেকেই ইচ্ছে ছিল হ্যান্ড পেইন্ট নিয়ে কাজ করার। নিজের যেহেতু হ্যান্ড পেইন্ট শাড়ি ও ড্রেসের প্রতি চরম দুর্বলতা কাজ করে, তাই ব্যবসার ক্ষেত্রে হ্যান্ড পেইন্টকেই প্রাধান্য দিয়েছি। উই থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে উদ্যোক্তা জীবন শুরু করেছিলাম। অনেক দিনের ইচ্ছে ছিল হ্যান্ড পেইন্ট নিয়ে কাজ করার। কিন্তু শুরু করার জন্য সঠিকভাবে পরামর্শ পাইনি। আমি উইতে যুক্ত হই ২০২০ সালে। গ্রুপে সবার পোষ্ট দেখে অনুপ্রাণিত হই। কিন্তু বুঝতে পারছিলাম না কী নিয়ে কাজ করব। আমার স্বামী আমাকে বলল তোমার তো হ্যান্ড পেইন্ট শাড়ি ও ড্রেস অনেক পছন্দ। তুমি এটা নিয়ে আরও জানার চেষ্টা কর এবং জেনে বুঝে কাজ শুরু কর। সেই থেকে আমি দীর্ঘ দিন হ্যান্ড পেইন্ট সম্পর্কে গুগোলে সার্চ করে পড়াশোনা শুরু করি। এভাবেই হ্যান্ড পেইন্ট পণ্য নিয়ে আমার কাজ করা।

টেক টাইমস বিডি : ব্যবসার শুরুটা কী অনলাইনকেন্দ্রিক না কী অন্যকোন উপায়ে ছিল?
সোনিয়া রহমান : আমার উদ্যোগের শুরু থেকেই আমি অনলাইনে ব্যবসা করছি। আমার উদ্যোগের নামে ওয়েবসাইটের কাজ চলছে। শীগ্রই ফেসবুক পেজের পাশাপাশি ওয়েবসাইটেও আমার পণ্য পাওয়া যাবে।

টেক টাইমস বিডি : আপনার ব্যবসার সফলতার কথা জানতে চাই।
সোনিয়া রহমান : আমার ব্যবসার সবচেয়ে বড় সফলতা নিজের নামের পাশে হ্যান্ড পেইন্ট শব্দটা যুক্ত হয়েছে। আমার সঙ্গে প্রথম দেখায় অনেকেই বলে, আপু আপনি তো হ্যান্ড পেইন্ট নিয়ে কাজ করেন! নিজের নামের চেয়ে উদ্যোগের নাম ‘ক্রিয়েটিভ হাতের কাজ’ নামেই বেশি চেনে।

টেক টাইমস বিডি : উদ্যোক্তা জীবনে সফল হতে কাদের ভূমিকা বেশি ছিল?
সোনিয়া রহমান : শুরু থেকেই দুই পরিবারের (বাবা ও শ্বশুর বাড়ি) অকল্পনীয় সহযোগিতা পেয়েছি। আমার কাজের সবচেয়ে বড় সাপোর্টার আমার স্বামী। আমার প্রত্যেকটি সাফল্যের পিছনে তার অবদান সবচেয়ে বেশি। আমার দুই পরিবারের সবাইকে স্বপ্ন পূরণে সব সময় পাশে পেয়েছি। কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি উই’র প্রেসিডেন্ট নাসিমা আক্তার নিশা আপুর প্রতি।

টেক টাইমস বিডি : ব্যবসা নিয়ে পরিকল্পনা কী?
সোনিয়া রহমান: আমি যেহেতু করোনাকালীনে এফ-কমার্স উদ্যোক্তা হই, তাই এফ-কমার্স নিয়ে আরও বেশি জানতে চাই। অনলাইনেই হ্যান্ড পেইন্ট শাড়ি ও ড্রেসকে দেশ-বিদেশে ছড়িয়ে দিতে চাই। আমার স্বপ্ন বিশ্বের সব দেশের লোক আমার দেশের ঐতিহ্যকে চিনুক এবং জানুক।

টেক টাইমস বিডি : উদ্যোক্তা জীবনের শুরু কতদিন ধরে এবং রেভিনিউ কেমন?
সোনিয়া রহমান : আমি ব্যবসা শুরু করেছিলাম ২০২১ সালের এপ্রিল মাসে। রেভিনিউ আলহামদুলিল্লাহ সন্তোষজনক।

টেক টাইমস বিডি : কাজ করতে গিয়ে কখনো বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছেন?
সোনিয়া রহমান : কাজ করতে গিয়ে খুব বেশি বিব্রতকর পরিস্থিতিতে আমি পরিনি। আমার ব্যবসাকে সবাই খুব সহজভাবে গ্রহণ করেছে। বরং সবার উৎসাহ পেয়েছি।

টেক টাইমস বিডি : ধন্যবাদ আপনাকে।
সোনিয়া রহমান : আপনাকেও অনেক ধন্যবাদ। আমার কথাগুলো বলার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য। আমি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি টেক টাইমস বিডি কর্তৃপক্ষকে। আশা করি আপনারা আমাদের পাশে থাকবেন ও নারী উদ্যোক্তাদের কথা তুলে ধরবেন দেশের মানুষের কাছে।

 

টেক টাইমস বিডি

টেক টাইমস বিডি ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিয়ে প্রযুক্তি বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন
টেক টাইমস বিডি ফেসবুক পেইজ লাইক করে সাথে থাকুনঃ টেক টাইমস বিডি ফেসবুক পেজের লিংক
টেক টাইমস বিডি ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করতে এখানে ক্লিক করুন এবং তথ্য প্রযুক্তির আপডেট ভিডিও দেখুন।
গুগল নিউজে টেক টাইমস বিডি সাইট ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন তারপর ফলো করুন।
তথ্য প্রযুক্তির আপডেট খবর পেতে ভিজিট করুন www.techtimesbd.com ওয়েবসাইট।